শিক্ষার্থীকে পুলিশের গুলি মাস্ক না পরায়

শিক্ষার্থীকে পুলিশের গুলি মাস্ক না পরায়

আফ্রিকার মধ্যাঞ্চলীয় দেশ ডেমোক্র্যাটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোর রাজধানী কিনশাসায় এক শিক্ষার্থী মাস্ক না পরায় তাকে গুলি করেছে পুলিশ। রবিবার রাজধানীর একটি সড়কের ভিডিও ধারণের সময় পুলিশ তাকে মাস্ক পরার আহ্বান জানানোর পর তাতে সাড়া না দেওয়ায় গুলি করা হয় বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

ওই শিক্ষার্থীর বন্ধু প্যাটিয়েন্ট ওডিয়া ফরাসী বার্তাসংস্থা এএফপিকে বলেছেন, ইউনিভার্সিটি অব কিনশাসার চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থী আমাদের বন্ধু হনোরে শামা ক্লাসের ব্যবহারিক কাজের অংশ হিসেবে ভিডিও ধারণ করছিলেন। এ সময় পুলিশের এক সদস্য তাকে মাস্ক পরার নির্দেশ দেন।

‌‘শামার ব্যাখ্যা এবং মাস্ক দেখানো সত্ত্বেও ঘুষ দাবি করা পুলিশের এক সদস্য ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে তাকে লক্ষ্য করে পয়েন্ট-ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জে গুলি করেন তিনি।’

অন্যান্য প্রত্যক্ষদর্শীরাও প্রায় একই ধরনের ঘটনার কথা দেশটির টপ কঙ্গো রেডিওকে জানিয়েছেন। দেশটির বেশ কয়েকটি অনলাইন সংবাদমাধ্যমও প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে একই সংবাদ প্রকাশ করেছে।

কিনশাসা পুলিশের প্রধান জেনারেল সিলভানো কাসোঙ্গো এএফপিকে বলেছেন, অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য পালিয়ে গেছেন এবং শহরের পুলিশ প্রশাসন তাকে ধরতে অভিযান শুরু করেছে। তিনি বলেন, এ ঘটনার সময় সেখানে উপস্থিত পুলিশের অন্য দুই সদস্যকে আটক করা হয়েছে। এর পাশাপাশি সেখানকার স্থানীয় পুলিশ স্টেশনের প্রধানকেও আটক করা হয়েছে। পলাতক পুলিশ সদস্যদের খোঁজে তল্লাশি অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানিয়েছেন কাসোঙ্গো।

করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় আফ্রিকার এই দেশটিতে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। দেশটিতে সরকারি এই বিধি লঙ্ঘন করলে ১০ হাজার কঙ্গোলিজ ফ্রাঙ্ক জরিমানা গুনতে হয়।

মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৭ হাজার ৭৮৬ জন এবং প্রাণ গেছে ১ হাজার ২১ জনের। অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিনের মেয়াদ ফুরিয়ে যাওয়ায় গত ১০ জুলাই থেকে দেশটিতে টিকাদান কর্মসূচি স্থগিত রয়েছে।