মঙ্গলগ্রহের মাটিতে মিশে আছে জৈব লবণ, মঙ্গলে প্রাণের অস্তিত্ব ছিল

 মঙ্গলগ্রহের মাটিতে মিশে আছে জৈব লবণ, মঙ্গলে প্রাণের অস্তিত্ব ছিল

মঙ্গলগ্রহের মাটিতে মিশে আছে জৈব লবণ। এমনই মনে করছে নাসা। আর তা থাকা মানে এক সময় মঙ্গলে প্রাণের অস্তিত্ব ছিল। এমনটাই ধারণা করছেন বিজ্ঞানীরা।

মঙ্গলে কী পানি ছিল? মঙ্গলে কী কখনও প্রাণের অস্তিত্ব ছিল? এ প্রশ্ন এখনও সকলকে নাড়া দেয়। পানির অস্তিত্ব থাকার বিষয়েও যেমন অনেক সদর্থক ইঙ্গিত বিজ্ঞানীরা পেয়েছেন, তেমনই প্রাণ থাকার বিষয়েও মিলেছে নানা তথ্য।

এখন পর্যন্ত প্রাণ যে ছিলই এখনও তা নিশ্চিত করে বলতে পারেননি বিজ্ঞানীরা। তবে প্রাণ থাকার ইঙ্গিত পেয়েই চলেছেন তাঁরা। বিশেষত মঙ্গলে পাঠানো যান কিউরিওসিটি-র থেকে পাওয়া নানা তথ্য বিজ্ঞানীদের লালগ্রহ সম্বন্ধে এমন এমন তথ্য দিয়েছে যে, যা তাঁদের পূর্বের ধারণাকেই আমূল বদলে দিয়েছে।

সেই কিউরিওসিটি এবার ইঙ্গিত দিচ্ছে যে মঙ্গলের মাটিতে মিশে আছে জৈব লবণ। আয়রন, ক্যালসিয়াম ও ম্যাগনেসিয়াম অক্সালেট কণা রূপে এই জৈব নুন ছড়িয়ে আছে লালগ্রহের মাটিতে।

কিউরিওসিটি-র পেটের মধ্যে রয়েছে একটি রসায়ন গবেষণাগার। সেখানেই মাটি পরীক্ষা করে তেমন ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে বলে জানিয়েছে নাসা।

বিজ্ঞানীরা মনে করছেন যদি জৈব লবণ পাওয়া যায় তাহলে বুঝতে হবে যে সেখানে কোনও সময় প্রাণের অস্তিত্ব হয়তো ছিল।

তাঁরা এটাও মনে করছেন, যদি লালগ্রহের কোথাও এই জৈব লবণ বেশি মাত্রায় পাওয়া যায় তাহলে সেখানে মাটি কিছুটা খুঁড়ে সেখান থেকে মাটি পরীক্ষা করলে তাতে প্রাণের অস্তিত্বের খোঁজ আরও বেশি করে পাওয়া যেতে পারে।

Eadmin

Related post