ইতিহাসে বিশ্বকাপ ফুটবল

ইতিহাসে বিশ্বকাপ ফুটবল

বিশ্বব্যাপী ফুটবলের নিয়ন্ত্রক বা অভিভাবক সংস্থা হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবল সংস্থা- ফিফা (FIFA)। ১৯৩০ সাল থেকে প্রতি চার বছর পরপর ফিফার তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে ফুটবল বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপের শুরুটা মূলত ১৯৩২ সালের অলিম্পিকে ফুটবলকে বাদ দেওয়ার পরিকল্পনা থেকে। ১৯৩২ সালের অলিম্পিক গেমস আয়োজিত হয় আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলসে। আমেরিকাতে ফুটবল তেমন একটা জনপ্রিয় না হওয়ার কারণেই মূলত ফুটবলকে অলিম্পিক থেকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ফলে ফিফার তৎকালীন প্রেসিডেন্ট জুলে রিমে বিশ্বকাপ আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নেন।

কিন্তু সমস্যা দেখা যায় বিশ্বকাপে খেলতে আগ্রহী এমন দল খুঁজতে গিয়ে। যাতায়াতের সমস্যা ও অন্যান্য খরচ অনেক বেশি হওয়ায় ফুটবল খেলুড়ে অনেক দেশই বিশ্বকাপে অংশগ্রহণে অনিচ্ছার কথা  জানায়। ফলে মাত্র ১৩ টি দল নিয়েই বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয় সেবছর। এর পরের দুই আসর বসে ইউরোপে। দক্ষিণ আমেরিকার কিছু দল আগ্রহ থাকা সত্ত্বেও যাতায়াত ও যুদ্ধবিগ্রহের সমস্যার জন্য অংশগ্রহণ করতে পারে নি। এই দুই বিশ্বকাপে একমাত্র ব্রাজিলই দক্ষিণ আমেরিকার প্রতিনিধিত্ব করে। এর পরে ১৯৪২ ও ১৯৪৬ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের জন্য দুইটি আসর অনুষ্ঠিত হয়নি। ১৯৫০ সালে আবার আসর দক্ষিণ আমেরিকায়। এবারে স্বাগতিক ব্রাজিল। এবারেও যোগাযোগের সমস্যা্র জন্য কিছু দল নাম প্রত্যাহার করে নিতে বাধ্য হয়।

১৯৩৪ থেকে ১৯৭৮ সাল পর্যন্ত বিশ্বকাপে ১৬টি দল অংশগ্রহণ করতো। এর মধ্যে শুধু ১৯৩৮ সালে ১৫ টি দল ও ১৯৫০ সালে ১৩ টি দল অংশগ্রহণ করে। ১৯৮২ থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত ২৪ টি দলের অংশগ্রহণে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয়। এরপরে ১৯৯৮ সাল থেকে ৩২ টি দল নিয়ে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। সামনের ২০২২ বিশ্বকাপই হবে শেষ বিশ্বকাপ যাতে ৩২ টি দল অংশগ্রহণ করবে। এর পর থেকে ৪৮ দলের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বকাপ। মূলত ফুটবলকে সার্বজনীন খেলায় রূপান্তরিত ও জনপ্রিয় করার উদ্দেশ্যেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ১৯৩০ থেকে এই পর্যন্ত মোট ২১ বার বসেছে এই আসর।

Leave a Comment